সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনে (SEO) হাতেখড়ি – পর্ব – ৫

Print Friendly

আজ আমরা আলোচনা করব কিভাবে অনপেজ অপটিমাইজেশন শুরু করতে হবে। অনপেজ অপটিমাইজেশন শুরু করতে হলে যা যা প্রয়োজনঃ

১. ওয়েবসাইটে কমপক্ষে ১৫ টি মানসম্মত পোস্ট থাকতে হবেঃ

পোস্ট কি সেটা আমরা সবাই জানি। কোন বিষয়ের উপর একেকটা Article বা একেকটা টপিক ই হল একেকটা পোস্ট। ওয়েবসাইটে ১৫ টির কম পোস্ট থাকলে যখন ফার্স্ট টাইম আপনার ওয়েবসাইটকে গুগোলে সাবমিট করবেন তখন গুগোল বোর্ড যে অটোমেটিক সিস্টেমের মাদ্ধমে আপনার ওয়েবসাইটকে ক্রল করবে অর্থাৎ আপনার সাইটের খুটিনাটি বিষয় গুগলের কাছে জমা দিবে। তখন আপনার সাইটে যদি পোস্ট কম থাকে তখন শুরুতেই বুজবে আপনার সাইটের ভ্যালু বা ডিমান্ড কম। এজন্য আপনার ওয়েবসাইটকে গুগলে সাবমিট করাতে চাইলে ওয়েবসাইটে কমপক্ষে ১৫-২০ টি মানসম্মত পোস্ট থাকতে হবে।

২. পোষ্টগুলো ইউনিক হতে হবেঃ

ইউনিক পোস্ট বলতে যা বুঝায় তা হল এমন কন্টেন্ট যা অন্য কোন ওয়েবসাইট বা ইন্টারনেট জগতের অন্য কোন স্থান থেকে কপি করা না, সেটা সম্পূর্ণরূপে আপনার নিজস্ব তৈরি। গুগোলকে সার্চ ইঞ্জিনের জায়েন্ট বা সার্চ ইঞ্জিনের দত্ত বলতে পারেন। সব ওয়েবসাইটের মালিকরা কিন্তু তাদের ওয়েবসাইটকে গুগলের নিকট পেশ করে নিজের ওয়েবসাইটকে সার্চ রেজাল্টে নিয়ে আসার জন্য। তো সবাই যখন তার ওয়েবসাইটকে গুগলের কাছে সাবমিট করে রাখবে তখন আপনি অনলাইন দুনিয়ার যেখান থেকেই কপি করে আনেননা কেন গুগলের কাছে ঠিকই ধরা পরে যাবেন। তাই আপনার পোস্ট গুলো ইউনিক বা নিজের বানানো হতে হবে। তবে হ্যাঁ আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইট পড়ে সেগুলোর ডাটা বা তথ্য গুলো সংগ্রহ করতে পারেন। সেগুলো দেখে দেখে আপনি নিজেও একটা পোস্ট তইরি করতে পারবেন। এতে কোন সমস্যা হবেনা, তবে হুবহু কপি করা যাবে না। কপি করলে আপনার ওয়েবসাইট সার্চ রেজাল্টে আসাতো দূরের কথা উল্টো আপনার ওয়েবসাইটটিকে ব্যান্ড করে দিতে পারে। তাই ইউনিক পোস্ট করতে হবে।

৩. ওয়েবসাইটের বেসিক ডিজাইন পরিপূর্ণ হতে হবেঃ

তো এর পরে যে কাজটি করতে হবে তা হল আপনার ওয়েবসাইটের বেসিক ডিজাইন পরিপূর্ণ হতে হবে। গুগলে যখন আপনার ওয়েবসাইটকে সাবমিট করতে দিবেন তখন গুগল যদি আপনার ওয়েবসাইটের বেসিক ডিজাইন অসম্পূর্ণ খুজে পায় তখন সেটিকে ভাল চোখে দেখবে না। তাই সাবমিট করার পূর্বেই ওয়েবসাইটের বেসিক ডিজাইনটা কমপ্লিট করতে হবে।

৪. হোমপেজ লিঙ্কিং থাকতে হবেঃ

এরপরে যে বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ তা হল ওয়েবসাইটের হোমপেজে লিঙ্কিং থাকা। কোন ওয়েবসাইটে ঢোকার পর প্রথম যে পেজটা দেখা যায় তাকেই হোমপেজ বলা হয়। তো এই ব্যাপারটি আমি আপনাদেরকে প্রাকটিকালি দেখিয়ে দিচ্ছি-

Tectunes bd

এখন আমরা Techtunes.com.bd এই ওয়েবসাইটটিতে আছি। তো এই পেজটা কিন্তু হোম পেজের সাথে লিঙ্কিং রয়েছে। চিত্রে দেখা যাচ্ছে ডান পাশে চেইন টিউনস লেখা রয়েছে। এর উপর ক্লিক করলেই আমরা এই পেজের ভিতর ঢুকে যাব। সুতরাং বুঝা যাচ্ছে হোমপেজের সাথে লিঙ্কিং এর গুরুত্ত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের কাছে অধিক পরিমানে রয়েছে। তাই হোমপেজের সাথে লিঙ্কিকিং করে রাখতে হবে। তারপরে গুগলে সাবমিট করতে হবে।

তো উপরে আলোচিত ৪টি বিষয় যদি আপনার ওয়েবসাইটে ঠিক থাকে তবে আপনি SEO শুরু করতে পারেন।

Print Friendly

ট্যাগ সমূহঃ

বাংলা ভাষায় ওয়েব ডিজাইন, ডেভেলপমেন্ট, ডেক্সটপ অ্যাপ্লিকেশান ডেভেলপমেন্ট শিখতে চান? আমরা রংপুর সোর্স আপনার জন্য হাই কোয়ালিটি এবং প্রোফেসনাল মানের প্রোজেক্ট এবং রিসোর্স ভিত্তিক ভিডিও টিউটোরিয়াল প্রকাশ করছি। আপনি আমাদের থেকে থেকে ভিডিও গুলো পেতে চাইলে অবশ্যই ক্রয় করতে হবে। তবে, ক্রয় করবার পূর্বে ভিডিও দেখে নিতে পারেন এজন্য আমরা আপনাকে দিচ্ছি ৩০ শতাংশ ফ্রী ভিডিও যেকোনো ভিডিও কোর্সের জন্য। ভিডিও কোয়ালিটি এবং প্রেজেন্টেশান দেখে আপনি সন্তুষ্ট হলে, তবেই বাকি টিউটোরিয়াল গুলোর ডিভিডি বা সিডি অর্ডার করুন! জেনে রাখা ভাল, আমাদের একেকটি ভিডিও কোর্স উক্ত ক্ষেত্রে প্রোফেসনালদের দ্বারাই তৈরি করা। তাই আপনি প্রোফেসনাল কাজ শিখবেন সেই দৃষ্টিকোণ থেকে আমাদের ভিডিও টিউটোরিয়াল গুলো ক্রয় করবেন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *